১৯ জুলাই ২০২৪, শুক্রবার, ০২:০৯:৩৬ পূর্বাহ্ন
গাজার শিশুদের জন্য ২০ লাখ ডলার দিলেন আইরিশ অভিনেত্রী
  • আপডেট করা হয়েছে : ০৬-০৭-২০২৪
গাজার শিশুদের জন্য ২০ লাখ ডলার দিলেন আইরিশ অভিনেত্রী

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ডে চলছে ইসরাইলি বাহিনীর বর্বরোচিত হামলা।  হামলায় এ পর্যন্ত ৩৮ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনিকে হত্যা করা হয়েছে। এর মধ্যে নারী-শিশুই প্রায় ৭০ শতাংশ। আহত ৮৭ হাজারের বেশি।  এই সংঘাতে প্রায় ২০ হাজার শিশু এতিম তথা পরিবারশূন্য হয়েছে। গাজার এসব অসহায় শিশুদের সাহায্যের জন্য বিভিন্ন সময় বিশ্বের অনেক তারকা হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। এবার এগিয়ে আসলেন নেটফ্লিক্সের হিট সিরিজ ‘ব্রিজারটন’-এ পেনেলোপ ফেদারিংটন চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে বিশ্বজুড়ে পরিচিত লাভ করা আইরিশ অভিনেত্রী নিকোলা কফলান।

সামাজিকমাধ্যমের প্রচেষ্টায় ফিলিস্তিনের শিশুদের জন্য ২০ লাখ মার্কিন ডলার সংগ্রহ করে তা অনুদান করেছেন এই অভিনেত্রী।

পাকিস্তান ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম দ্য ডনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, নিজের দেওয়া ২০ লাখ মার্কিন ডলার প্যালেস্টাইন চিলড্রেনস রিলিফ ফান্ডে (পিসিআরএফ) দিয়েছেন এই সুন্দরী অভিনেত্রী। এর জন্য সংস্থাটির পক্ষ থেকে তার প্রতি অবশ্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়েছে।

সংস্থাটি এক্স হ্যান্ডেলে (সাবেক টুইটার) এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, অবিশ্বাস্যভাবে ২০ লাখ মার্কিন ডলার সংগ্রহ এবং তা সরবরাহের জন্য ‘ব্রিজারটন’ তারকা অভিনেত্রী নিকোলা কফলানকে ধন্যবাদ। ত্রাণ, পুনরুদ্ধারের প্রচেষ্টা এবং শান্তির জন্য সমর্থনে অনুপ্রাণিত করা, বাস্তুচ্যুত শিশু ও দরিদ্র পরিবারগুলোর জন্য মানবিক সহায়তা এবং চিকিৎসায় ত্রাণ প্রদানের জন্য ধন্যবাদ।

এদিকে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই আইরিশ অভিনেত্রীর প্রচেষ্টা শুধু তহবিল সংগ্রহ নয়, বরং ফিলিস্তিনের পরিস্থিতি সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করেছে।
এর আগে এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, আমি আমার স্বপ্নের কাজ করছি এবং বিশ্ব ভ্রমণে যাচ্ছি। তবে বর্তমানে গাজার দক্ষিণের ছোট শহর রাফাতে কী ঘটছে, সেই সম্পর্কেও যথেষ্ট সচেতন আমি।

এ অভিনেত্রীকে বিভিন্ন সময় ফটোশ্যুটে এবং নেটফ্লিক্সের হিট সিরিজ ‘ব্রিজারটন’-এর প্রচারণার সময় যুদ্ধবিরতি ও শিল্পীদের নিরাপত্তার প্রতীক ব্যাজ পরা অবস্থায় দেখা গেছে। এছাড়া জানা গেছে, নিকোলো কফলানের বাবা মধ্যপ্রাচ্যে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা বাহিনীর যুদ্ধবিগ্রহ তদারকির সদস্য ছিলেন। আবার তার পরিবার ৭০-এর দশকের শেষ দিকে জেরুজালেমে বসবাস করত। এ কারণে অঞ্চলটির প্রতি গভীর টান এই আইরিশ অভিনেত্রীর।

শেয়ার করুন