১৮ জুন ২০২৪, মঙ্গলবার, ০২:৩৪:৫২ অপরাহ্ন
বাঘায় প্রতিদ্বন্দ্বির এজেন্টকে হুমকির অভিযোগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে
  • আপডেট করা হয়েছে : ০৫-০৬-২০২৪
বাঘায় প্রতিদ্বন্দ্বির এজেন্টকে হুমকির অভিযোগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে

রাজশাহী রাজশাহীর বাঘা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রার্থী রোকনুজ্জামান রিন্টুর বিরুদ্ধে তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর নির্বাচনী এজেন্টকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী ও বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান লায়েব উদ্দিন লাভলুর এজেন্ট রফিকুল ইসলাম এ অভিযোগ করেছেন।


বুধবার সকাল থেকে শুরু হওয়া এ ভোটে রফিকুল ইসলাম বাঘা উপজেলার খানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে লাভলুর এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। নারীদের এ কেন্দ্রে মোট ভোট কক্ষ ছয়টি। এরমধ্যে দুটি কক্ষে লাভলুর দুজন এজেন্ট পাওয়া গেছে। অন্য চারটি কক্ষে লাভলুর কোন এজেন্ট পাওয়া যায়নি। বাঘা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লায়েব উদ্দিন লাভলু মোটরসাইকেল ও রোকনুজ্জামান রিন্টু আনারস প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ দুজন ছাড়াও অন্য কোন চেয়ারম্যান প্রার্থী নেই। রিন্টু জেলা ছাত্রলীগের সাবেক নেতা।


আর লাভলু জেলা আওয়ামী লীগের নেতা। খানপুর এলাকায় রোকনুজ্জামান রিন্টুর বাড়ি। খানপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে লাভলুর এজেন্ট রফিকুল ইসলাম অভিযোগ করেন, সকালে ভোট শুরুর পর রিন্টু কেন্দ্রে এসেছিলেন। রফিকুল ইসলামকে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর এজেন্ট হিসেবে দেখে তিনি ক্ষুব্ধ হয়েছেন।


ভোট শেষে সন্ধ্যার পর তাকে দেখে নেওয়া হবে, এমন হুমকি দেওয়া হয়েছে বলে দাবি রফিকুল ইসলামের। তিনি আরো অভিযোগ করেন, লায়েব উদ্দিন লাভলুর চার এজেন্টকে একে কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। তবে ভোট কেন্দ্রের সহকারী প্রিজাইডিং অফিসার মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান দাবি করেছেন, এজেন্টদের বের করে দেওয়ার মত ঘটনা ঘটেনি। কোন কারণে হয়তো তারাই ভোটকেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করতে আসেননি।


প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর এজেন্টকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে আনারস প্রতিকার প্রার্থী রোকনুজ্জামান রিন্টু বলেন, কোন প্রার্থী কখনো ভোটের দিন কাউকে হুমকি দিয়ে বেড়ান না। এ অভিযোগ মিথ্যা। তিনি বলেন, খানপুর এলাকায় তার নিজের বাড়ি বলে হয়তো এই অভিযোগ করা হচ্ছে। কিন্তু তিনি সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভোট চান।


শেয়ার করুন