essay writer
রাজশাহী | শনিবার | ফেব্রুয়ারী 24, 2018 | 12 ফাল্গুন, 1425

রাণীনসওজের জায়গা দখল করে চলছে বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ : রহস্যজনক ভূ’মিকায় কর্তৃপক্ষ

রাণীনসওজের জায়গা দখল করে চলছে বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ : রহস্যজনক ভূ’মিকায় কর্তৃপক্ষ

নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর রাণীনগর উপজেলা সদরের বিজয়ের মোড়ে সড়ক ও জনপদ বিভাগের আওতাধীন রাণীনগর-আবাদপুকুর মহাসড়কের পাশে ও খাদ্য গুদামের সাবেক রাস্তা দখল করে বহুতল ভবন নির্মাণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করার প্রায় এক মাস পার হয়ে গেলেও রহস্যজনক কারণে নিরব ভূমিকা পালন করায় জনমনে দেখা দিয়েছে নানা প্রশ্ন।

জানা গেছে, অর্থের জোরে কর্তৃপক্ষকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে কৌশলে জবর-দখল করে সরকারি জায়গায় এই বহুতল ৫তলা ভবন নির্মাণের কাজ করা হচ্ছে বলে স্থানীয়দের কাছে থেকে অভিযোগ। জনসাধারণের চলাচল করার রাস্তাটি দখল করে এই ভবন নির্মাণ করায় বেকায়দায় পড়েছে স্থানীয় মানুষ। সরকারি নিয়ম অনুসারে যে কোন সরকারি রাস্তার উভয় দিকে ২০ফিট করে বাদ দিয়ে যে কোন ভবন নির্মাণ করার বিধান রয়েছে। কিন্তু সড়ক ও জনপদ বিভাগের আওতাধিন রাণীনগর-আবাদপুকুর মহাসড়কের পাশে ও খাদ্য গুদামের সাবেক রাস্তার জায়গা দখল করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই স্থানীয় প্রভাবশালী মহলকে ম্যানেজ করে রাস্তার ২০ফিট জায়গা ছেড়ে না দিয়ে চলছে এই ৫তলা ভবন নির্মাণের কাজ ।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় অনেকেই অভিযোগ করে বলেন, আমরা যারা ভিতরে বসবাস করি তাদের চলাচলের জন্য খাদ্য গুদামের পরিত্যাক্ত রাস্তাটি দখল করে এই ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। তাহলে আমরা কিভাবে চলাচল করবো? এছাড়াও ভবিষ্যতে এই মহাসড়কের উভয় পাশে বর্ধিত কাজ করার সময় এই ভবনটি বাধার সৃষ্টি করবে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ।

এবিষয়ে ভবন নির্মাণকারী মো: মন্টু সেপাই বলেন, আমি কোন সরকারি রাস্তার জায়গা দখল করিনি। আমার ক্রয়কৃত জায়গাতে আমি ভবন নির্মাণের কাজ করেছি। এতে যদি কারো সমস্যা মনে হয় তাহলে তারা জমি মেপে দেখতে পারেন।

এবিষয়ে রাণীনগর উপজেলা প্রকৌশলী মো: সাইদুর রহমান মিঞা জানান, রাণীনগর-আবাদপুকুর মহাসড়কটি এখন সড়ক ও জনপদ বিভাগের আওতায়। তাই এই বিষয়টি খতিয়ে দেখার দায়িত্ব আমার নয়।

এব্যাপারে নওগাঁ সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: হামিদুর রহমান জানান, লিখিত ভাবে অভিযোগ পেলে আমি ভবন নির্মাণের স্থানে সার্ভেয়ার পাঠাবো। স্থানটি পরিদর্শন করার পর যদি ভবনটি আমার সড়কের জায়গায় আসে তাহলে তা ভেঙ্গে ফেলা হবে।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>