essay writer
রাজশাহী | শনিবার | ফেব্রুয়ারী 24, 2018 | 12 ফাল্গুন, 1425

ঈশ্বরদীতে আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতির ছেলে সহ ৪ ছিনতাইকারী আটক

ঈশ্বরদীতে আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতির ছেলে সহ ৪ ছিনতাইকারী আটক

এস, এম, জহুরুল নিজস্ব প্রতিবেকঃ পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলায় প্রাইভেটকার ও অস্ত্রসহ ৪ ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। আটককৃত ছিনতাইকারীরা সকলেই সরকারি দলের কর্মী এবং একজন পাবনা সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি গোলাম রব্বানী টেগারের ছেলে।

মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারি) মধ্য রাতে তাদের গ্রেফতার করা হয়। বুধবার (১৭ জানুয়ারি) ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিম উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

আটককৃত ছিনতাইকারীরা হলেন গোলাম রব্বানী টেগার ছেলে গোলাম কিবরিয়া ইমন (৩৫), কামাল আহম্মেদ মজনুর ছেলে মারুফ আহম্মেদ সাব্বির (২৫), আসাদুল ইসলাম রতনের ছেলে হাসানুল ইসলাম (৩৫) এবং আশরাফুল ইসলাম বাটুর ছেলে ফয়সাল হোসেন (১৯) । এছাড়া আব্দুল কুদ্দসের ছেলে জীবন (৩০) পালিয়ে  যায়।

ছিনতাই মামলার বাদী ফতেহমোহাম্মদপুর এলাকার আকুল প্রামানিক জানান, তিনি ও তার পার্টনার হানিফ উপজেলার দাশুড়িয়ায় মাছ বিক্রি করে আসার সময় মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে অরোণকোলা সিমেন্ট ফ্যাক্টরির কাছে নির্জন স্থানে প্রাইভেটকার নিয়ে ছিনতাইকারীরা প্রশাসনের লোক পরিচয় দিয়ে তাদের অটোবাইক থামায়। ছিনতাইকারীরা এসময় বলে, আমরা কাল এখান থেকে ইয়াবা উদ্ধার করেছি এবং আপনাদের কাছেও ইয়াবা আছে বলে তথ্য পেয়েছি। এ কথা বলে তারা তল্লাশি করতে শুরু করে। তাদের কাছে মাছ বিক্রির ৬৫ হাজার টাকা দেখে ছিনতাকারীরা টাকার মধ্যে ইয়াবা আছে বলে টাকাগুলো নিয়ে নেয়। টাকা নেয়ার পর তারা একটি ড্যাগার বের করে চেঁচামেচি করলে জানে মেরে ফেলব বলে টাকা নিয়ে প্রাইভেটকারে চড়ে পালিয়ে যায়। ছিনতাইকারীরা তাড়াহুড়ো করে চলে যাওয়ার সময় তাদের একটি দামী মোবাইল ফোন পড়ে যায়। এই অবস্থায় তিনি ওই মোবাইল নিয়ে থানায় এসে অভিযোগ করেন।

অকুল আরও জানান, এ সময় মোবাইলে অনেক রিং আসলেও তারা ধরেননি। পুলিশ রিং ধরে এবং কৌশল করে বলেন, ফোন পেয়েছি- মিষ্টি খাওয়ার টাকা দিয়ে শহরের রেলগেট থেকে ফোন নিয়ে যান। ঈশ্বরদী থানার এসআই শাহীন এই অবস্থায় রেলগেটে একদল সাদা পোশাকের পুলিশ নিয়ে অপেক্ষা করতে থাকেন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে ছিনতাইকারীরা কারযোগে ফোন নিতে গেলে পুলিশ ৪ জনকে আটক করলেও জীবন পালিয়ে যায়। এসময় উপস্থিত জনতা ছিনতাইকারীদের গণপিটুনি দেয়।

ওসি আজিম উদ্দিন জানান, রাতে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে তারা শতাধিক ছিনতাইয়ের কথা স্বীকার করেছে। ছিনতাইয়ের সময় তারা প্রাইভেটকার বা মোটরসাইকেল ব্যবহার করে বলেও তারা জানিয়েছে।আজ বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মামলা নথিভুক্ত করে তাদেরকে পাবনা জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে ।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>