essay writer
রাজশাহী | বৃহস্পতিবার | জানুয়ারী 18, 2018 | 5 মাঘ, 1425

হীম শীতল বাতাসে কাহিল পঞ্চগড়ের মানুষ

হীম শীতল বাতাসে কাহিল পঞ্চগড়ের মানুষ

মোহাম্মদ সাঈদ পঞ্চগড় প্রতিনিধিঃধীরে ধীরে তাপমাত্রা বাড়লেও পঞ্চগড়ে কমছে না শীতের তীব্রতা। আকাশ মেঘলা থাকায় গত দু’দিন ধরে দুপুরের আগে সূর্যের মূখ দেখা যাচ্ছে দুপুরের পর থেকে। আবার সূর্যের দেখা মিললেও হিমালয় থেকে আসা উত্তরের হীম শীতল বাতাস অব্যাহত থাকার কারণে সূর্যের তাপ অনুভূত হচ্ছে না। রাতভর বৃষ্টির মত ভারী কুয়াশা ঝড়ার পর  বৃহস্পতিবার বেলা একটা পর্যন্ত মেঘের কোলে লুকিয়ে ছিল সূর্য। কনকনে ঠান্ডা বাতাসের কারণে সূর্য দেখা যাওয়ার পরও পঞ্চগড়ের শীতার্ত মানুষরা আগুন জ্বেলে শীত নিবারণের চেষ্টা করেছে। সরকারিভাবে অপ্রতুল শীতবস্ত্রের কারণে শীতার্ত মানুষরা দৌড়াচ্ছে জনপ্রতিনিধিদের কাছে। পঞ্চগড় সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান কামরুন নাহার শাহিন জানান, শীতার্তদের অত্যাচারে বাড়িতে থাকতে পারছি না। এই মৌসূমে দেড়শ’র মত কম্বল পেয়েছিলাম সেগুলো অনেক আগেই বিতরণ শেষ করেছি। নতুন করে আর কম্বল পাইনি।

তেঁতুলিয়া আবহাওয়া অফিস থেকে প্রাপ্ত তথ্য মতে বুধবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৭.০ ডিগ্রি সেলসিয়াস থেকে ২ ডিগ্রি বেড়ে  বৃহস্পতিবার তা দাড়ায় ৯.০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। প্রচন্ড শীতের কারণে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থী উপস্থিতি কমে গেছে আশংকাজনকভাবে। আর লেখাপড়ার জন্য প্রতিষ্ঠানে আসলেও শ্রেণির ভেতর কনকনে ঠান্ডা থাকায় শিক্ষার্থীদের মাঠে খেলাধুলা করতে দেখা গেছে। শৈত্যপ্রবাহ কেটে তাপমাত্রা সহনীয় পর্যায়ে না আসা পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্বাভাবিক উপস্থিতি হবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>